মেনু নির্বাচন করুন

কমিউনিটি সেন্টার/ক্লাব/সমিতি/এসোসিয়েশনকে বার্ষিক অনুদান
 
           সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারীদের দ্বারা গঠিত ও পরিচালিত বিভিন্ন কমিউনিটি সেন্টার/ক্লাব/সমিতি/ এসোসিয়েশনের সদস্যদের সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড, খেলাধুলা ও অন্যান্য কল্যাণমূলক কাজের উন্নয়ন ও বিকাশের লক্ষ্যে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান করে থাকে।
 
সেবার মৌলিক তথ্যাবলী :
সেবা প্রদানকারী অফিসের নাম
দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা/কর্মচারী
সেবা প্রাপ্তির স্থান
প্রয়োজনীয় সময়
বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড, বিভাগীয় কার্যালয়, বরিশাল
পরিচালক
কল্যাণ অফিসার
বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড, বিভাগীয় কার্যালয়, বরিশাল
১৫ দিন
 (বরাদ্দ থাকা সাপেক্ষে)
সেবা প্রদানের সংক্ষিপ্ত বিবরণ
 আবেদন প্রাপ্তির পর বরাদ্দ থাকা সাপেক্ষে ১৫ দিনের মধ্যে অর্থছাড় করা হয়।
 
 
 
সেবা প্রাপ্তির শর্তাবলি
 
 
১. সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের চাকুরিক্ষেত্রে (দপ্তরে) অথবা অন্য কোন  বিষয়ে সরকারের সাথে দরকষাকষি (বার্গেনিং এজেন্ট) সমিতিকে এ খাত হতে অনুদান দেয়া যাবে না।
২. ক্লাব/কমিউনিটি সেন্টার/সমিতিরি গঠনতন্ত্র থাকতে হবে এবং তা সাধারণ সভায় সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য কর্তৃক অনুমোদিত হতে হবে।
৪. ক্লাব/কমিউনিটি সেন্টার/সমিতি সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক নিবন্ধনকৃত এবং বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড নিয়ম মোতাবেক তালিকাভূক্ত হতে হবে। 
৫. অনুদান প্রাপ্তির জন্য ক্লাব/কমিউনিটি সেন্টার/সমিতির অডিট রিপোর্ট (সিএ ফার্ম/সমবায় অফিস/জেলা বা থানা হিসাবরক্ষণ অফিস দ্বারা) প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক ও ভবিষ্যৎ কল্যাণ কার্যক্রমের বিবরণী দাখিল করতে হবে।
৬. বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড ব্যতীত অন্য কোন উৎস হতে অনুদান/সাহায্য পেয়ে থাকলে তা উল্লেখ করতে হবে।
৭. বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড হতে যে কর্মসূচিভিত্তিক অনুদান বরাদ্দ করা হবে তা সে কর্মসূচি বাস্তবায়নে ব্যয় করতে হবে। তবে খাত পরিবর্তন করতে চাইলে বাংলাদেশ কর্মচারী  কল্যাণ বোর্ডের পূর্ব অনুমতি নিতে হবে। এবং এর অন্যথা হলে ভবিষ্যতে অনুদান বরাদ্দের বিষয় বিবেচনা করা হবে না, বর্ং তা কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।
৮. প্রতিষ্ঠানের কার্য নির্বাহী কমিটি কর্তৃক প্রণীত ও অনুমোদিত চলতি আর্থিক বছরের বাজেট অবশ্যই দাখিল করতে হবে।
৯. প্রতিষ্ঠানের গঠনতন্ত্রের সংশ্লিষ্ট ধারামতে নির্বাচিত বর্তমান কার্যবির্বাহী কমিটির তালিকা অবশ্যই দাখিল করতে হবে। নির্বাচন সংক্রান্ত জটিলতা বা প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় অচলবস্থা দেখা দিলে অনুদান বরাদ্দ বিবেচনা করা হবে না।
১০. যে সকল প্রতিষ্ঠান সরকারি কর্মচারী ও তাদের উপর নির্ভরশীল পোষ্যদের কল্যাণমুলক কর্মকান্ডে সক্রিয় অবদান রাখবে সে সকল প্রতিষ্ঠানকে অনুদান দেয়ার বিষয়ে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
১১. অনুদান বরাদ্দের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানসমূহের কর্মকান্ডই মূখ্য বিবেচিত হবে।
১২. প্রতিষ্ঠান কর্তৃক চলতি বছরে গৃহীত কল্যাণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য প্রণীত বাজেটে ব্যয়িত অর্থের কমপক্ষে ১/৪ ভাগ সদস্য চাঁদা ও অন্যান্য নিজস্ব আয় হতে মিটাতে হবে।
১৩. প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব প্যাডে/রশিদের মাধ্যমে প্রাপ্তিস্বীকার প্রদান সাপেক্ষে অনুদানের চেক হস্তান্তর/গ্রহন করতে হবে। প্রাপ্তিস্বীকার ব্যতিত অনুদানের চেক কোন ভাবেই হস্তান্তরযোগ্য নয়।
১৪. আবেদন ফরমের প্রতিটি কলাম সঠিক তথ্যসহ যথাযথভাবে পূরণ এবং ব্যাংক হিসাব নম্বরের তথ্য সংক্রান্ত ৭নং অংশ অবশ্যই পূরণ করতে হবে। অসম্পূর্ণ/সন্দেহযুক্ত/ত্রুটিপূর্ণ আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।
প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
১. নির্ধারিত আবেদন ফরম নম্বর- ১২ www.bkkbbarisaldiv.gov.bd হতে ডাউনলোড করা যেতে পারে।
২. ক্লাব/কমিউনিটি সেন্টার/সমিতি সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক নিবন্ধন সনদ।
৩. অনুদান প্রাপ্তির জন্য ক্লাব/কমিউনিটি সেন্টার/সমিতির অডিট রিপোর্ট (সিএ ফার্ম/সমবায় অফিস/জেলা বা থানা হিসাবরক্ষণ অফিস দ্বারা)
৪. প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক ও ভবিষ্যৎ কল্যাণ কার্যক্রমের বিবরণী
৫. প্রতিষ্ঠানের কার্যবির্বাহী কমিটি কৃর্তৃক প্রণীত ও অনুমোদিত চলতি আর্থিক বছরের বাজেট।
৬. প্রতিষ্ঠানের খরচের আয়-ব্যয় সংক্রান্ত বিবরণ (খরচের ভাউচার ফটোকপি সংযুক্ত করতে হবে)
৭. প্রতিষ্ঠার বছর উল্লেখসহ প্রতিষ্ঠানের গঠনতন্ত্র।
৮. বর্তমান কার্য নির্বাহী কমিটির ও সাধারণ সদস্যগণের তালিকা।
৯. প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের চেক বইয়ের কভার পেজ ও পাতার সত্যায়িত ফটোকপি
প্রয়োজনীয় ফি
এজন্য কোন ফি প্রয়োজন হয় না
সংশ্লিষ্ট আইন
বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড আইন, ২০০৪ এবং বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড (তহবিলসমূহ পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ) বিধিমালা ২০০৬ অনুযায়ী
নির্দিষ্ট সেবা পেতে ব্যর্থ হলে পরবর্তী প্রতিকারকারী কর্মকর্তা
পরিচালক
কল্যাণ অফিসার